ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারের নিয়ম

ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে আজকের পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। ইনস্টাগ্রাম বর্তমানের একটি জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া। এই জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া আবিষ্কার  করেছিলেন ক্যাবিন সিস্ট্রম এবং মাইক ক্রিগার। বর্তমান বিশ্বে ইনস্টাগ্রাম ইউজারের সংখ্যা প্রায় ১.০৭৪ বিলিয়ন। কমবেশি যারা ফেইসবুক এর সাথে জড়িত তারা সবাই ইনস্টাগ্রাম এর ব্যবহার বিধি গুলো ও কিছুটা বুঝে থাকেন। কিন্তু ফেসবুক থেকে কিছুটা ভিন্ন আঙ্গিকের চমৎকার কিছু ফিচার রয়েছে ইনস্টাগ্রামে।যার ব্যবহার হয়তো অনেকেই করতে পারেনা। আর ইনস্টাগ্রাম ফিড স্ক্রোল করে আফসোস করে বেড়ায়। তাই আজকের পোস্টটি হবে ইনস্টাগ্রাম সম্পর্কে ডিটেলস নিয়ে অর্থাৎ ইনস্টাগ্রামের ফিচারস গুলো নিয়ে। আশা করি কারো কোনো কনফিউশন থাকলে আজকের পোস্টটি তা ক্লিয়ার করে দিবে।

ইউজার নেইম ( User name) :

আপনার ইন্সটাগ্রাম ইউজারনেম যদি আপনার ইন্ডিভিজুয়াল নাম অনুযায়ী হয় তাহলে মানুষের আপনাকে ইনস্টাগ্রামে খুঁজে পেতে সহজ হবে। তাই ইউজারনেম নিজের নামেই রাখুন। ইন্সটাগ্রাম ইউজার নেইমে ৩০ ক্যারেক্টার পর্যন্ত ওয়ার্ড ব্যবহার করা যায়।

ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট টাইপ ( Instagram Account type)

প্রাইভেট এবং পাবলিক একাউন্ট।

ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট ওপেন করার পর যদি পার্সোনাল একাউন্ট হয়ে থাকে তাহলেই শুধুমাত্র আপনার একাউন্ট টি প্রাইভেট হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। যদি বিজনেস একাউন্ট হয় তাহলে অবশ্যই তা পাবলিক করে নিতে হবে। এবং আপনার সব এক্টিভিটিস অর্থাৎ আপনার পোষ্ট, স্টোরিজ হাইলাইটস, ফলোয়ার্স সবই পাবলিক থাকবে ভিউয়ারদের কাছে।

প্রোফাইল ফটো (Profile photo) :

ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট টি পার্সোনাল বা কোনো কোম্পানির হতে পারে।সে অনুযায়ী অবশ্যই একটি পারফেক্ট প্রোফাইল ফোটো বা কোম্পানি লোগো দিতে পারেন। এগুলো ও অন্যতম সহজ উপায় হাজারো একাউন্ট থেকে আপনাকে খুজে বের করবার। ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল ফটোর সাইজ হলো ৩৬০*৩৬০ পিক্সেল।

ইনস্টাগ্রাম বায়ো (Instagram Bio) :

ইনস্টাগ্রামে আপনার প্রোফাইলে ঢুকলেই সেখানে ইডিট বায়ো নামে একটি অপশন আছে,সেই অপশনে যেয়ে নিজের সম্পর্কে বা যদি এটি কোনো বিজনেস পেইজ হয়ে থাকে তাহলে সেই পেজটি  সম্পর্কে স্পষ্ট ভাবে ইনফর্মেশন লিখতে হবে। ইনস্টাগ্রাম বায়োতে প্রায় ১৫০ ক্যারেক্টার পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়।

এড কন্ট্রাক্ট ইনফরমেশন  (Add Contract Information) 

আপনার ইনস্টাগ্রাম একাউন্টটি যদি কোন বিজনেস একাউন্ট হয়ে থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই বিজনেস ইমেইল বা ইনফরমেশন ব্যবহার করতে হবে। আর যদি পার্সোনাল একাউন্ট হয়ে থাকে তাহলে ব্যক্তি স্ব-ইচ্ছায় চাইলে তার কন্টাক্ট ইনফর্মেশন ব্যবহার করতে পারেন। কন্টাক্ট ইনফরমেশন শেয়ার করতে না চাইলে তার প্রাইভেসি মেইনটেইন করার সুযোগ ও রয়েছে ইন্সটাগ্রাম এ।

ইনস্টাগ্রাম পোস্ট বা কন্টেন্ট আপলোড(Instagram post/Content upload ) 

ইনস্টাগ্রামে যেকোনো পোস্টই ছবি বা ভিডিও হিসেবে আপলোড করতে হয়।ছবির সাইজ হতে হবে ১০৮০*১০৮০  পিক্সেল। ইনস্টাগ্রাম পোষ্টের অর্থাৎ ইমেজের দৈর্ঘ্য যদি ৫৬৬ থেকে ১৩৫০ পিক্সেল এর মধ্যে হয় তাহলে এই পোস্টের অরিজিনাল সাইজ ই আপলোড করা যায়। ল্যান্ডস্কেপ ইমেজ হলে এর সাইজ হবে ১০৪০*৬০৮ পিক্সেল।

 ইনস্টাগ্রাম হ্যাশট্যাগস ( Instagram hashtags) 

 ইনস্টাগ্রামের পোস্ট আপলোড এর মুহূর্তে হ্যাশট্যাগ  ব্যবহার একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিভিন্ন পোস্টে  হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার পোষ্টটিকে স্পেসিফিক ক্যাটাগরিতে কনভার্ট করতে পারছেন যেটা কিনা একটি টার্গেটেড ইউজারের কাছে আপনার পোস্টটিকে খুব দ্রুত পৌঁছে দিবে। হতে পারে আপনার পোস্টটি কোন সেলার পোস্ট অথবা কোন প্রোডাক্টের সেল পোস্ট যা আপনি চান অনেক কাস্টমার পর্যন্ত পৌঁছে যাক,স্পেসিফিক হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি কাজটি অনেক সহজেই করতে পারেন।

এর পাশাপাশি ওই  হ্যাশট্যাগ গুলো পপুলার হলে আপনার পোস্টটিও  পপুলারিটি পেয়ে যাবে। তাই হ্যাশট্যাগ সিলেকশন এর সময় অবশ্যই সবচেয়ে পপুলার অথবা সর্বাধিক মানুষ যে  ট্যাগ গুলো ব্যবহার করেছে তা বেছে নিতে হবে। এবং হ্যাশট্যাগ গুলো অবশ্যই আপনার পোস্ট সম্পর্কিত হতে হবে।

ইনস্টাগ্রাম স্টোরিস (Instagram Stories) :

ইনস্টাগ্রাম স্টোরিস এ আপনি প্রতিদিনকার  মুহূর্তগুলো আপলোড করতে পারেন। যেটা কিনা ২৪ ঘন্টা আপনার প্রোফাইল এ থাকবে আর আপনার ফলোয়ারসরা তা দেখতে পারবে। পাব্লিক একাউন্ট হলে যারাই আপনার প্রোফাইল ভিজিট করবে তারাই দেখতে পারবে। ইন্সটাগ্রাম স্টোরিতে যদি কোনো কভার ইমেজ ব্যবহার করা হয় তাহলে এর সাইজ হবে ১০৮০*১৯২০ পিক্সেল। 

ইনস্টাগ্রাম আইজি টিভি ( Instagram IGTV ) :

ইনস্টাগ্রামে সাধারণত এক মিনিট সময়ের ছোট ভিডিও আপলোড করা যায় কিন্তু কোন ভিডিও যদি এক মিনিটের বেশি দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট হয় তাহলে সে ভিডিওসমূহ আইজিটিভি ভিডিও হিসেবে বিবেচনা করা হয়।যা আপনার প্রোফাইলেই বিদ্যমান থাকে।  আইজিটিভি ভিডিওতে যদি আপনারা নিজস্ব কোন কভার ইমেজ ব্যবহার করতে চান সে ক্ষেত্রে সেই ইমেজের সাইজ হতে হবে ৪২০*৬৫৬ পিক্সেল।

ইনস্টাগ্রাম রিলস ( Instagram Reels) :

ইনস্টাগ্রাম রিলস হলো রিসেন্ট ট্রেন্ড ফলো করার দারুন একটি মাধ্যম। যেখানে আপনি যেকোন ছোট ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারেন। এই ভিডিও সমূহ হতে পারে ব্যক্তিগত, সংগ্রহ করা ভিডিও বা কারো সাথে কোলাবোরেইট করে বানানো ছোট ভিডিও। 

ইনস্টাগ্রাম হাইলাইটস (Instagram Highlights) 

ইন্সটাগ্রাম  হাইলাইটস এ আপনি আপনার স্পেশাল বা গুরুত্বপূর্ণ মোমেন্টস, ইভেন্টগুলো এর নাম অনুযায়ী ফোল্ডার করে রেখে দিতে পারেন। এই ফোল্ডার গুলোকেই ইন্সটাগ্রাম হাইলাইটস বলা হয়। হাইলাইটস গুলোয় চাইলে ছোট কভার ইমেজ দিয়ে স্পেসিফিক ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করে আপনার গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট গুলো সেইভ করে রাখতে পারেন।

ইনস্টাগ্রাম ইনসাইটস ( Instagram Insights) :

 ইনস্টাগ্রাম ইনসাইটস ইন্সটাগ্রাম এর অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার যেখান থেকে আপনি আপনার প্রোফাইলের নানা ওভারভিউ বুঝতে পারবেন। যেমন আপনি কয়টা পোস্ট করেছেন, কোন বয়সের মানুষ আপনাকে বেশি ফলো করছে বা দিন বা রাতের কোন সময়টিতে আপনার ফলোয়ার বেশি একটিভ থাকছে, আপনার কোন ধরনের পোস্ট একাধিক মানুষ পর্যন্ত রিচ করেছে, কোন পোস্টে কয়বার ক্লিক করা হয়েছে এইসব কিছুই আপনি ইন্সটাগ্রাম ইনসাইট থেকে জানতে পারবেন।

কিভাবে ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট খুলতে হয়?

ইন্সট্রাগ্রাম এ একাউন্ট খোলার জন্য আপনি যেকোনো ব্রাউজার থেকে ইন্সটাগ্রাম ডাউনলোড লিখে সার্চ করে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ইন্সটাগ্রাম ডাউনলোড করতে পারেন। আর যদি মোবাইল এর জন্য ইন্সটাগ্রাম এপ্স ডাউনলোড করতে হয় তাহলে প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

Screenshot 20210818 224218
Screenshot 20210818 224225

কিভাবে ইনস্টাগ্রাম এ পোস্ট করবেন?

ইন্সটাগ্রাম ইন্সটল করার পর একটা ইন্টারফেইস ওপেন হয় যে ইন্টারফেইস এর ঠিক নিচে (+) চিহ্নিত একটি অপশন রয়েছে।সেখানে ক্লিক করে গ্যালারি থেকে ফোটো বা ভিডিও সিলেক্ট করে নির্দিষ্ট ক্যাপশন এবং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে পোস্ট করা  সম্পন্ন করতে পারেন।

ইন্সটাগ্রাম এ ফলোয়ার কিভাবে বাড়াবেন?

ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ার বাড়ানোর সবচেয়ে ভালো এবং অথেন্টিক উপায় হলো নিয়মিত পোস্ট আপলোড করা এবং আপনার ফলোয়াররা ঠিক কেমন পোস্ট পছন্দ করছে সেটি আইডেন্টিফাই করে সেই টাইপের পোস্ট আপলোড করা এবং তা নিয়মিত করা। এতে করে আপনার ফলোয়ার আপনার পোষ্টের সাথে অধিক মাত্রায় এনগেইজ হতে পারবে। এছাড়া আরো কিছু উপায় হলো,

পোস্ট আপলোড করার সময় পূর্ব নির্ধারণ করে রাখা।

ইনস্টাগ্রাম ইনসাইট থেকে কোন সময়টিতে আপনার ফলোয়ার সবচেয়ে বেশি একটিভ থাকে তা আইডেন্টিফাই করা।

পোষ্টে অবশ্যই রিলিভ্যান্ট হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা।

ইনস্টাগ্রামের বিভিন্ন ভেরিফাইড একাউন্ট ফলো করা।

Screenshot 20210818 195336

এগুলোর মধ্যে  সবচেয়ে বেশি ফলোয়ার গেইন করতে সাহায্য করবে যদি আপনি রেগুলার আপনার  অ্যাকাউন্টটিতে পোস্ট করতে পারেন রিসেন্ট ট্রেন্ড ফলো করতে পারেন এবং  আপনার পোষ্টে ভ্যারাইটি নিয়ে আসতে পারেন।

কিভাবে ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট ডিলিট করা যায়?

ইনস্টাগ্রামে একাউন্ট ডিলিট করার অপশন মোবাইলে এভেলেবেল না থাকলেও আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থেকে ইনস্টাগ্রাম এ লগ ইন করে ইনস্টাগ্রাম ডিলিট অথবা ডিএক্টিভেট এর অপশন  খুঁজে বের করতে পারবেন। আপনার প্রোফাইল থেকে Edit profile অপশনে ক্লিক করে একটু নিচের দিকেই একটি অপশন খুজে পাওয়া যাবে। যেখানে লিখা Temporary disable my account,   আর এই অপশনটিতে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনি আপনার একাউন্টে সাময়িকের জন্য ডিএকটিভেট করে রাখতে পারবেন।

instagram pc login
instagram pc login

 এখন একাউন্ট ডিলিট করার জন্য প্রথমে ইনস্টাগ্রাম থেকে আপনার প্রোফাইলে যেতে হবে আপনার প্রোফাইলে যাওয়ার পর Settings -> Help -> Help Centre ->Manage your account   সিলেক্ট করতে হবে।

Screenshot 20210818 234300
Screenshot 20210818 234306
Screenshot 20210818 234345
Screenshot 20210818 234400

https://help.instagram.com/

delete 120132

এরপর পরিবর্তি ইন্টারফেইস এ অনেকগুলো প্রশ্ন আসবে সেখান থেকে আপনার একাউন্ট ডিলিট এর কোয়েশ্চন টি খুজে না পেলে উপরের সার্চ বারে How can I delete my Instagram account এই প্রশ্নটি লিখতে হবে। তারপর পরবর্তী পেইজে যে এক নাম্বার অপশনটি ফলো করলেই ইনস্টাগ্রাম একাউন্টটি ডিলিট এর অপশন খুঁজে পাওয়া যাবে।

ইনস্টাগ্রাম সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার দিন দিন  বেড়েই চলেছে।এর মাধ্যমে অনেকেই ঘরে বসে আয় রোজকার করতে পারছেন। অনেক প্রোডাক্টিভ কাজ ও করতে পারছেন। তাই এই সোশ্যাল মিডিয়াটির  সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে ধারণা রাখার মাধ্যমে আপনিও চাইলে ঘরে বসে নিজের আয়ের একটি উৎস বের করে ফেলতে পারবেন।

5/5 - (6 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!